আড়াই লাখ চীনা পর্যটক প্রত্যাশা করছে ইন্দোনেশিয়া

-মনিটর অনলাইন Date: 24 January, 2023
116.jpg

চলতি বছর ইন্দোনেশিয়া প্রায় ২ লাখ ৫৫ হাজার চীনা পর্যটক আগমনের প্রত্যাশা করছে। 

মহামারীর কারণে প্রায় ৩ বছর চীন থেকে ইন্দোনেশিয়ার রিসোর্ট দ্বীপ বালিতে সরাসরি ফ্লাইট বন্ধ ছিল। চীন কভিড নীতিমালা শিথিল করার পর সম্প্রতি এ রুটে সরাসরি ফ্লাইট চালু হয়েছে। এরই মধ্য দিয়ে দ্বীপটিতে বাড়তে শুরু করেছে চীনা পর্যটকদের সংখ্যা। 

ইন্দোনেশিয়া এ বছর সামগ্রিকভাবে ৩৫ থেকে ৭৪ লাখ বিদেশী পর্যটক আগমনের রেকর্ড গড়ার লক্ষ্যে কাজ করছে। চীনা পর্যটকদের প্রত্যাবর্তন সে লক্ষ্য পূরণে সহায়ক হবে মনে করছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত চীন থেকে ৯৪ হাজার ৯২৪ জন ভ্রমণকারী এসেছে দেশটিতে। চলতি বছর কমপক্ষে ২ লাখ ৫৫ হাজার চীনা পর্যটক ইন্দোনেশিয়ায় আসবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। মহামারী শুরুর আগে প্রতি বছর চীন থেকে ২০ লাখের অধিক পর্যটক পাড়ি জমাত দেশটিতে।

পর্যটন ও সৃজনশীল অর্থনীতিবিষয়ক মন্ত্রী স্যান্ডিয়াগা উনো এক বিবৃতিতে বলেন, ইন্দোনেশিয়ার পর্যটনের অন্যতম বড় বাজার চীনা পর্যটক। চীনের অনলাইন ট্যুর এজেন্টদের তথ্যের ভিত্তিতে বিদেশে পর্যটন গন্তব্যের জন্য অনুসন্ধানের পরিমাণ ৪৩০ শতাংশ বেড়েছে। ইন্দোনেশিয়া শীর্ষ পাঁচটি অনুসন্ধানের মধ্যে রয়েছে। এর মধ্যে বালি দ্বীপ অনুসন্ধানের পরিমাণ ২৫০ শতাংশ বেড়েছে।

দীর্ঘদিনের অচলাবস্থা ঘুচিয়ে রবিবার (২২ জানুয়ারী)চীনের শেনজেন থেকে আসা ইন্দোনেশিয়া লায়ন এয়ারের একটি চার্টার ফ্লাইট বালিতে অবতরণ করে। প্রথম ফ্লাইটটিতে প্রায় ২১০ জন পর্যটক ছিল। চীন কভিড বিধিনিষেধ শিথিল করায় আন্তর্জাতিক ভ্রমণের সুযোগ পেয়ে আনন্দিত চীনা পর্যটকরা। বালিতে আসা প্রথম ফ্লাইটে থাকা অ্যান পেই নামের এক চীনা পর্যটক বলেন, আমি অত্যন্ত সুখী ও প্রশান্তি অনুভব করছি। আমরা অনেকদিন ধরে বিদেশ ভ্রমণে যেতে পারিনি।

৮ জানুয়ারি চীন সরকার ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পর ফ্লাইটটি চালুর ঘোষণা এসেছিল। ২২ জানুয়ারি শুরু হওয়া চীনা চান্দ্র নববর্ষের প্রথম দিনে ফ্লাইটটি চালু হয়। লায়ন এয়ারের মুখপাত্র ড্যানাং ম্যান্ডালা প্রিহ্যানটোরো জানিয়েছেন, শেনজেন-বালি রুটটি প্রাথমিক পর্যায়ে সপ্তাহে একবার পরিচালিত হবে।

-B

Share this post



Also on Bangladesh Monitor